ঢাকা, ||

ইন্দুরকানীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে নির্মল চন্দ্র নামের এক পল্লী চিকিৎসকের মৃত্যু


ইন্দুরকানী

প্রকাশিত: ১১:৪৬ পূর্বাহ্ণ, জুন ১১, ২০২০

সিনিয়র প্রতিবেদক: পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে জ্বর, সর্দি  ও কাশিসহ করোনার উপসর্গ নিয়ে নির্মল চন্দ্র দাস নামে এক পল্লী চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার রাতে জেলা হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

স্থানীয় বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, ওই পল্লী চিকিৎসক বেশ কয়েকদিন ধরে সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন । কোন ধরনের পরীক্ষা ছাড়াই নিজস্ব ব্যবস্থায় ওষুধ খেয়েছেন। বুধবার রাতে হঠাৎ করে বাড়িতে তার শ্ব্সকষ্ট বেড়ে যায় । পরে তাকে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যায়।

ইন্দুরকানী বাজার ব্যবসায়ী  হারুন অর রশিদ জানান, সর্দি, জ্বরও শ্বাসকষ্টে নির্মল ডাক্তার প্রায় দশ দিন ধরে অসুস্থ ছিলেন । তার ছেলে ও পুত্রবধুও সর্দি জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন।  তিনি বলেন, হাসপাতালে তার নমুনা রেখেছে। নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়া গেলে তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কিনা জানা যাবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মুহাম্মদ মুজাহিদ আল মুজাহিদ জানান, ওই এলাকার বেশিরভাগ লোকই স্বাস্থ্যবিধি মানেন না। মাস্ক ব্যবহার করেন না। দোকানপাট খোলা রেখে জনসমাগম করেন।

তিনি আরও জানান, নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন ছাড়া ওই পল্লী চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কিনা তা বলা যাবে না।  তিনি বলেন, মৃত ব্যক্তির পরিবারের সদস্যসহ যারা তার সংস্পর্শে এসেছেন তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে।

এদিকে, করোনা উপসর্গে মারা যাওয়ায় স্থানীয় বাজারের ব্যবসায়ীসহ স্বজনদের অনেকেই পল্লী চিকিৎসকের কাছে যাননি। পরে ভাড়া করে লোক এনে গ্রামের বাড়ি সেউতিবাড়িয়ায় ওই চিকিৎসকের মরদেহ দাহ করার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

Top