ঢাকা, ||

১ মাসের অভিযানে ২৮ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করেছে বরিশাল ট্রাফিক পুলিশ


আইন-আদালত

প্রকাশিত: ৫:৪০ অপরাহ্ণ, মে ১২, ২০১৮

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের (বিএমপি) চার থানা ও গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সদস্যদের টানা একমাস ১০ দিনের অভিযানে মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকায় ১২৫ জনকে আটক করেছে। পাশাপাশি এ ঘটনায় ১০৭টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে, বরিশাল মেট্রোপলিটনের ট্রাফিক বিভাগ অভিযান চালিয়ে ৩ হাজার ৬৭৪ টি মামলার অনুকূলে ২৮ লাখ ২০ হাজার ৭৪০ টাকা জরিমানা আদায় করেছে।

শনিবার (১২ মে) দুপুরে বরিশাল নগরের আমতলা মোড়ে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের অস্থায়ী কার্যালয়ের পঞ্চম তলার সভা কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সব তথ্য জানান পুলিশ কমিশনার (ভারপ্রাপ্ত) মো. মাহফুজুর রহমান।

তিনি বলেন- গত বৃহস্পতিবার (১ মে) থেকে শনিবার (৫ মে) পর্যন্ত গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সদস্যরা বরিশাল মহানগরের ৪টি থানায় অভিযান পরিচালনা করে। এ অভিযানে মোট ২ হাজার ৭৭৬ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ১৫২ পিস অ্যাম্পুল জি-মরফিন ইনজেকশন, সাড়ে ৩ কেজি গাঁজা, ৩৫০ লিটার বিদেশি মদ, ৪ লিটার চোলাই মদ, ১টি বগি দা, ২টি দা, ১টি ছোড়া, ২টি চাকু, মাদক পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত ২টি মোটরসাইকেলসহ পরিত্যক্ত অবস্থায় আরও ২টি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়।

ওই অভিযানে ১২৫ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় চারটি থানায় মোট ১০৭টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ অভিযান চালিয়ে ৩ হাজার ৬৭৪টি মামলার অনুকূলে মোট ২৮ লাখ ২০ হাজার ৭৪০ টাকা জরিমানা আদায় করেছে।

তিনি আরও বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে জিরো ট্রলারেন্স নীতিতে আমরা কাজ করছি। পাশাপাশি বরিশাল নগরের ট্রাফিক ব্যবস্থাপনাকে একটি শৃঙ্খলার মধ্যে আনার জন্য ট্রাফিক বিভাগ কাজ করে চলছে। প্রথম পর্যায়ে নগরের মোটরসাইকেল গুলোকে নিয়মের মধ্যে আনতে ১ মাস ১০ দিনের অভিযানে পরিচালনা করা হয়েছে। এ সময় মোটরসাইকেল চালক ও আরোহীদের হেলমেট বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

এদিকে, বরিশাল মেট্রোপলিটনের আওতাধীন একটি এলাকায় ২/১ টি ডাকাতির ঘটনা ঘটে। পরে বরিশাল এয়ারপোর্ট থানা একটি মামলার সূত্র ধরে গত শুক্রবার (১১ মে) ডিবির সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. নাসির উদ্দির মল্লিকের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ অভিযানে ডাকাত চক্রের সক্রিয় সদস্য বরিশাল নগরের এয়ারপোর্ট থানাধীন ছাতিয়া এলাকার মো. মকবুল হাওলাদারের ছেলে মো. রাশেদ হাওলাদারকে আটক করা হয়।

পাশাপাশি ডাকাত সদস্যের দেওয়া তথ্যানুযায়ী নগরের ছাতিয়া এলাকা থেকে ডাকাতির সময় ব্যবহৃত ১টি বিদেশি পিস্তল ও ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় বিমানবন্দর থানায় অস্ত্র আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার হাবিবুর রহমান খান, মো. গোলাম রউফ খান, উত্তম কুমার পাল, মোয়াজ্জেম হোসেন ভূঁইয়া, মো. জাহাঙ্গীর মল্লিক এবং খাইরুল আলমসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

Top