ঢাকা, ||

ইন্দুরকানীতে দলীয় নেতাকর্মীদের হাতে লাঞ্চিত উপজেলা আ‘লীগের সেক্রেটারি মনিরুজ্জামান


ইন্দুরকানী

প্রকাশিত: ৬:৫৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৯, ২০১৯

স্টাফ রির্পোটার:

ইন্দুরকানীতে টেন্ডার নিয়ে  দলীয় নেতা কর্মীদের হাতে লাঞ্চিত হয়েছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মনিরুজ্জামান মৃধা । এ ঘটনায় টেন্ডার কমিটি সব বিদ্যালয়ের টেন্ডার স্থগিত করে পুনরায় সব বিদ্যালয়ের টেন্ডার দেযার সিদ্ধান্ত নেয়।

সোমবার উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের অধীনে উপজেলার পরিত্যাক্ত ৪ টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবনের নিলামের ওপেন টেন্ডারের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এর আগে ৪ টি বিদ্যালয়ের মধ্যে একটি ২৪ নং ভবানীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যনেজিং কমিটির সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মৃধা মোঃ মনিরুজ্জামান তার বিদ্যালয়টি নিলাম টেন্ডার থেকে বাদ দেয়ার জন্য টেন্ডার কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে আবেদন করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজিব আহমেদ তার আবেদনের ভিত্তিতে ওই বিদ্যালয়টির টেন্ডার স্থগিত করেন।

সোমবার সাড়ে দশটার দিকে ওপেন টেন্ডারে অংশগ্রহণ করতে আসা সুবিধাভোগী সহ উপজেলা যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কতিপয় নেতাকর্মীরা উপজেলা শিক্ষা অফিসের নোটিশ বোর্ডে এসে দেখে ভবানীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের টেন্ডার স্থগিত।পরে অফিস থেকে তারা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির আবেদনে টেন্ডার কমিটি স্থগিত করেছে জানতে পেরে ওই নেতাকে খুজতে থাকে। কিছু সময়ের মধ্যেই উপজেলা পরিষদের সামনে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মৃধা মোঃ মনিরুজ্জামানকে পেয়ে উপজেলা যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা টেন্ডার স্থগিতর জন্য তাকে গালাগালি করে। তখন তাদের সাথে থাকা নেতা কর্মীরা তাকে এলোপাথারি কিল ঘুষি দিয়ে তাকে মাটিতে ফেলে দিয়ে চরমভাবে লাঞ্ছিত করে। আওয়ামীলীগ নেতাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করলে পরে তার স্বজনেরা তাকে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

লাঞ্চিত উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মৃধা মোঃ মনিরুজ্জামান জানান, আমি অফিসের কাজে উপজেলা পরিষদের সামনে গেলে উপজেলা যুবলীগ নেতা ইকরামুল শিকদার সহ ১০ থেকে ১৫ জন নেতা কর্মী আমাকে টেন্ডারের কথা বলে গালাগালি করে এবং আমার উপর হামলা চালায়। তাদের হামলায় আমি আহত হই।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. এম মতিউর রহমান জানান, যে কারণেই হোক উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের উপর টেন্ডারের সুবিধাভোগীদের হামলা দুঃখজনক। এঘটনার নিন্দা জানাই। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নিলাম টেন্ডার কমিটির সভাপতি রাজিব আহমেদ জানান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের আবেদনের ভিত্তিতে একটি বিদ্যালয়ের টেন্ডার স্থগিতর ঘটনায় সৃষ্ট জটিলতার জন্য সব বিদ্যালয়ের নিলাম টেন্ডার স্থগিত করা হয়েছে। পরে সব বিদ্যালয়ের টেন্ডার এক সময় দেয়া হবে।

উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সমপাদক (ভারপ্রাপ্ত) ইকরামুল শিকদার জানান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক তার বিদ্যালয়ের নিলাম টেন্ডার স্থগিত করে গোপনে নিজে নিতে চেয়েছিল যুবলীগ ছাত্রলীগ এর প্রতিবাদ করেছে। কিন্তু কোন হামলার ঘটনা ঘটেনি।

Top