ঢাকা, ||

ভাণ্ডারিয়ায় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা, লাশ উদ্ধার


ভান্ডা‌রিয়া

প্রকাশিত: ৪:২৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

ভাণ্ডারিয়া উপজেলায় পপি আক্তার (১৫) নামে এক স্কুলছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল রবিবার দিনগত রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হতে পুলিশ ওই স্কুলছাত্রীর লাশ উদ্ধার করে। বাবার কাছে একটি মোবাইল ফোনসেট চেয়ে না পেয়ে অভিমানে ওই স্কুলছাত্রী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে বলে মেয়েটির পরিবার ও পুলিশ নিশ্চিত করেছেন। নিহত পপি উপজেলার শিয়ালকাঠী গ্রামের আব্দুল আলিম খলিফার মেয়ে। মেয়েটি স্থানীয় সুন্দরবন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণিতে লেখাপড়া করছিল।

থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পপি আক্তার সম্প্রতি বাবার কাছে একটি মোবাইল ফোন সেটের আবদার করে। কিন্তু লেখাপড়ার ক্ষতি হবে ভেবে ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা আব্দুল আলিম মেয়েকে মোবাইল ফোন কিনে দিতে রাজি হননি। এ নিয়ে বাবার ওপর মেয়েটি অভিমান করে।

এক পর্যায় রবিবার বাবা মেয়েকে বকা দেন। এতে মেয়েটি ক্ষব্দু হয়ে ঘটনার দিন রাতে শয়ন কক্ষে ফ্যানের সাথে ওড়না দিয়ে ফাঁস দেয়। পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে গুরুতর অবস্থায় ভাণ্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মেয়েটিকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ খবর পেয়ে হাসপাতাল হতে ওই স্কুলছাত্রীর লাশ উদ্ধার করে।

ভাণ্ডারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শাহাবুদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় আজ সোমবার ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে অভিভাবকদের লিখিত আবেদনের প্রেক্ষিতে ও স্কুলছাত্রীর লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Top