ঢাকা, ||

অনুমতি ছাড়া কাউকে বদলি নয়: নির্বাচন কমিশন


Uncategorized

প্রকাশিত: ৪:২৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১১, ২০১৮

অনলাইন ডেক্সঃ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হওয়ায় নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অনুমতি ছাড়া সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত, আধাশায়িত্ব শাসিত প্রতিষ্ঠানের কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বদলি না করতে মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে চিঠি দিয়েছে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি।

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ স্বাক্ষরিত চিঠিতে ভোটের ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর ১৫ দিন পর্যন্ত কাউকে বদলি না করার কথা বলা হয়েছে।

অপর এক চিঠিতে আগামী ১৫ নভেম্বরের মধ্যে বিভিন্ন ভবন ও স্থাপনায় প্রচার সামগ্রী অপসারণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অন্যথায় এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ প্রশাসনকে বলা হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে দেয়া চিঠিতে ইসির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সংবিধানের ১২৬ অনুচ্ছেদ এবং আরপিও’র ৫ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী নির্বাচনের কাজে সহায়তা প্রদান সকল নির্বাহী বিভাগের কর্তব্য। কোনো কর্মকর্তা দায়িত্ব পাওয়ার পরে অব্যহতি না দেয়া পর্যন্ত তার চাকরির অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে ইসির অধীনে প্রেষণে আছেন বলে গণ্য হবে।

এ ছাড়াও আরপিও’র ৪৪ই অনুচ্ছেদ অনুযায়ী নির্বাচনের সময়সূচি জারি হওয়ার পর হতে ফল ঘোষণার পর ১৫ দিন পর্যন্ত ইসির অনুমতি ছাড়া কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারীকে অন্যত্র বদলি না করার বিধান রয়েছে।

চিঠিতে আরো বলা হয়, নির্বাচনের কাজে নিয়োজিত ব্যক্তিবর্গকে অব্যহতি না দেওয়া পর্যন্ত যাতে তাদের অন্যত্র বদলি বা ছুটি দেওয়া না হয় অথবা নির্বাচনী দায়িত্ব ব্যাহত হতে পারে এমন কোনো কাজে নিয়োজিত না করা হয় তা নিশ্চিত করতে সব মন্ত্রণালয়-বিভাগ, সরকারি স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস-প্রতিষ্ঠান ও সংস্থাগুলোকে পরিপত্রের মাধ্যমে নির্দেশ দেয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে দেয়া পৃথক চিঠিতে বলা হয়েছে, নির্বাচনে সকল সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত অফিস বা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও কর্মচারি এমনকি কোনো কোনো ক্ষেত্রে বেসরকারি অফিস প্রতিষ্ঠান থেকেও প্রয়োজনীয় সংখ্যাক ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা নিয়োগ করা হবে। ভোটগ্রহণের পাশাপাশি নির্বাচনের বিভিন্ন দায়িত্ব দেয়া হবে তাদেরকে। নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হবে। এসব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সততা নিষ্ঠা ও নিরপেক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের জন্য সবার সহযোগিতা প্রয়োজন।

Top