ঢাকা, ||

মঠবাড়িয়ায় ব্লেড দিয়ে কলেজছাত্রীকে জখমের ঘটনায় দুলাল গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিনিধি: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় কলেজ ছাত্রীকে ব্লেড দিয়ে আহত করার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসামি শহিদুল ইসলাম দুলালকে (২৮) গ্রেপ্তার করেছে মঠবাবিড়য়া থানা পুলিশ। বুধবার দুপুরে পৌর শহরে অভিযান চালিয়ে কোর্ট এলাকা থেকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। থানা সূত্রে জানাগেছে, বুধবার বেলা ১১ টার দিকে পৌর শহর থেকে মামলার প্রধান আসামি শহিদুল ইসলাম দুলাল হেলমেট পড়ে মোটরসাইকেল যোগে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালায়। এসময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আব্দুল্লার নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুলালকে গ্রেফতার করে। মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আব্দুল্লাহ জানান, গ্রেপ্তাররকৃত শহিদুল ইসলাম দুলালকে বুধবার দুপুরেই পিরোজপুর জেলা হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। উল্লেখ্য, গত সোমবার বিকেলে শহরের মহিউদ্দিন আহমেদ মহিলা ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেনীর ছাত্রী নুসরাত জাহান স্বর্ণা (১৭) প্রাইভেট পড়ে বাসায় ফেরার পথে গ্রেপ্তার হওয়া শহিদুল ইসলাম দুলাল পুণরায় তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিলে কলেজ ছাত্রী প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলে ক্ষিপ্ত হয়ে ব্লেড দিয়ে ছাত্রীর বাম হাতে পেচ দিয়ে রক্তাক্ত জখম করে এবং পরে নিজেও ব্লেড দিয়ে আহত হয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ছাত্রীর নানা মুক্তিযোদ্ধা আ. লতিফ হাওলাদার বাদী হয়ে সোমবার রাতে শহিদুল ইসলাম দুলাল ও তার সহযোগি ইমরান বাবুকে আসামী করে মঠবাড়িয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। শহিদুল ইসলাম দুলাল উপজেলার আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডস্থ কালিকাবাড়ি গ্রামের সামসুল হকের ছেলে।
Top