ঢাকা, ||

মুজিববর্ষে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নানা কর্মসূচি

অনলাইন ডেক্সঃ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে মুজিববর্ষে নানা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। মঙ্গলবার (৩ মার্চ) দুপুরে গাজীপুরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যাম্পাসে সংবাদ সম্মেলনে এসব কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ। উপাচার্য জানান, ১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিনে জাতীয় বিশ্ববিদ‌্যালয়ের অধিভুক্ত ২ হাজার ২৬০টি কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে অভিন্ন ব্যানারে সকাল সাড়ে ১০টায় আনন্দ র‌্যালি করা হবে। কেন্দ্রীয় পর্যায়ে ঢাকায় উপাচার্যের নেতৃত্বে আনন্দ র‌্যালি হবে। ঢাকা মহানগরীর সব কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীকে নিয়ে এ র‌্যালি হবে। র‌্যালিটি মানিক মিয়া এভিনিউয়ে শুরু হয়ে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে গিয়ে শেষ হবে। পরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানো হবে। জেলা পর্যায়ে ১৮ থেকে ২৪ মার্চ পর্যন্ত মুজিববর্ষ আন্তঃকলেজ ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা হবে। ২৯ থেকে ৩১ মার্চ বিভাগীয় পর্যায়ে এবং ৪ এপ্রিল ঢাকায় চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা হবে। ৩১ মার্চ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে ‘মার্চ ১৯৭১ : বাঙালি জাতি রাষ্ট্রের উত্থান’ শীর্ষক আলোচনা সভা হবে। উদ্যোগ নেয়া হয়েছে দুটি স্মারক গ্রন্থ প্রকাশের। বই দুটি হলো—দেশের প্রথিতযশা গবেষক, লেখক ও শিক্ষাবিদদের লেখা নিয়ে ‘বঙ্গবন্ধু : সমাজভাবনা ও রাজনৈতিক দর্শন’ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজ ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের নির্বাচিত লেখা নিয়ে ‘বঙ্গবন্ধু : জীবন ও কর্ম’। উপাচার্য আরো জানান, দেশব্যাপী অধিভুক্ত কলেজ/শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ‘বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী ও কারাগারের রোজনামচা গ্রন্থদ্বয় থেকে যা শিক্ষণীয়’ শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। রচনা প্রতিযোগিতায় লেখা পাঠানোর শেষ তারিখ ১৫ মে। ২০২০ সালের জুলাইয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অঙ্গীভূত মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ গবেষণা ইনস্টিটিউটের আয়োজনে ‘বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক লোক বক্তৃতা/সেমিনার আয়োজন করা হবে।  এছাড়া, জাতীয় শোক দিবস, মহান বিজয় দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। মুজিববর্ষে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যাম্পাস ও অধিভুক্ত কলেজ/শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হবে। এছাড়া, ২০২১ সালের জানুয়ারিতে মুজিববর্ষ আন্তঃকলেজ ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা এবং রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কার দেয়া হবে। ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হবে। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে মুজিববর্ষ সমাপনীতে শিক্ষক সমাবেশ আয়োজনের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের গাজীপুর ক্যাম্পাসে জাতির পিতার পূর্ণাঙ্গ ভাস্কর্য নির্মাণের পরিকল্পনা করা হয়েছে।  মুজিববর্ষের থিম সং নির্ধারণের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যলয়ের উপাচার্যের কনফারেন্স হলে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ‌্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, রেজিস্ট্রার, পরিচালক (জনসংযোগ) ফয়জুল করিম প্রমুখ।
Top